1. admin@assistbangladesh.org : admin :
  • 01713-077667
  • assistbangladesh@gmail.com

আমার বাড়ি আমার খামার : কুষ্টিয়ার জেলা সমন্বয়কারী ও সিনিয়র অফিসারের বিতর্কিত কর্মকাণ্ড

ছবি : জেলা সমন্বয়কারী ও ইনসেটে সিনিয়র অফিসার

আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে কিসের ভিত্তিত অসৎ অযোগ্য সমন্বয়কারী (ডিসিও) নিয়োগ দেয়া হয় তা প্রশ্ন বিদ্ধ। কুষ্টিয়া জেলার আমার বাড়ি আমার খামারের জেলা সমন্বয়কারী (ডিসিও) ও সিনিয়র অফিসার আব্দুর রহমানের অসৎ ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত কর্মকান্ড ও কাজের গতিবিধি মনিটরিং করা অতীত জরুরি বলে অভিজ্ঞ মহলের অভিমত।

পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন কারো পক্ষে বিপক্ষে নয়, সত্যের পক্ষে মিথ্যের মুখোশ তুলে ধরাই উদ্দেশ্য। প্রতিবেদনের সত্যতা যাচাই ও উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কার্যালয়/কর্তৃপক্ষের।

আমার বাড়ি আমার খামার কুষ্টিয়া জেলা সমন্বয়কারী (ডিসিও) তানিয়া আফরিন নিজের প্রতি অর্পিত দায়িত্ব পালন না করে দিনেরপর দিন কারণে অকারণে ছুটি কাটান এবং মনগড়া বানোয়াট রিপোর্টে পেশ করেন হেড অফিসে। তার অনৈতিক কাজের সহযোগি হিসেবে আছেন অদক্ষ সিনিয়র অফিসার আব্দুর রহমান, প্রকল্পটি তিল তিল করে বেড়ে ওঠার পেছনে কিন্তু এসব সিনিয়র অফিসাররা ছিলেন না। ছিলেন পুরনো নিবেদিত কর্মী। আর প্রকল্পটির সুদিনে এসে অসচ্ছল প্রক্রিয়ায় নিয়োগ পান এসব অদক্ষ, অসৎ সিনিয়র অফিসাররা। দু’দিনের বৈরাগী হয়ে আসা জেলা সমন্বয়কারী (ডিসিও) তানিয়া আফরিন ও আব্দুর রহমান কাজের অদক্ষ থাকলেও অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রমাণ পাওয়া যাবে একটু খতিয়ে দেখলেই। এবং সময় অসময় দাম্ভিকতার সাথে বলেন, ‘আমার যা ইচ্ছে তাই করবো, হেড অফিস আমার কিচ্ছু করতে পারবেনা।’ দূর্নীতির পক্ষ নেয়া এসব অথর্ব লোক কিসের ভিত্তিতে নিয়োগ পান তা প্রশ্ন বিদ্ধ। এসব অসৎ, অদক্ষ, দূরদর্শিতাজ্ঞানহীন লোক নিয়োগ পান বলেই কর্মের প্রতি নিবেদিত প্রাণ, দক্ষ সৎ কর্মিদের মূল্যায়ন হয়না। এবং বিভিন্ন সময়ে প্রকল্পটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এসব অসচ্ছল প্রক্রিয়ায় নিয়োগ পাওয়া অযোগ্য জেলা কর্মকর্তারা ও সিনিয়র অফিসার অধিকাংশ ক্ষেত্রে দায়ী।

সম্প্রতি এক ফিল্ড সুপার ভাইজার বিল্লাল হোসেন মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করে চাকরি ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। পরবর্তী দক্ষ ও বিজ্ঞ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) তৎপরতায় উক্ত ব্যক্তিকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে টাকা আত্মসাৎ এর কথা স্বীকার করে। এদিকে জেলা সমন্বয়কারী (ডিসিও) ও সিনিয়র অফিসার আত্মসাৎকারীকে বিভিন্নভাবে তৎপর হয়ে ওঠে। ও মনগড়া রিপোর্ট পেশ করে যা উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

একজন জেলা সমন্বয়কারী হয়ে কিসের স্বার্থে অর্থ আত্মসাৎকারী ফিল্ড সুপার ভাইজারকে রক্ষার্থে তৎপর হোন এবং নিজের দায় এড়িয়ে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে এর দায় অন্যের ঘাড়ে চাপানোর হীন পায়তারায় লিপ্ত হয়ে মনগড়া বানোয়াট রিপোর্টে পেশ করেন! এদিকে বিশ্বস্তসূত্রে জানা গেছে জেলা সমন্বয়কারীর (ডিসিও) সাথে ঐ ফিল্ড সুপার ভাইজারের গোপন আঁতাত রয়েছে। এতে বিষয়টা পরিস্কার। এদিকে উপজেলা অফিসে সিসি ক্যামেরা থাকলেও জেলা সমন্বিতকারীর (ডিসিও) কার্যালয়ে কোনও সিসি ক্যামেরা নেই। ডিসিও ঠিকঠাক অফিসও করেননা! দায়িত্বের গাফিলতি ও অসৎ ডিসিও ও সিনিয়র অফিসার না বুঝেন কাজ, না আছে দক্ষতা। না যান ফিল্ডে না যান জেলা অফিসের আওতাধীন উপজেলা অফিস সমুহে। মাঝে মধ্যে অফিসে এলে গালগল্প করে কাটান আর একে ওকে হুমকি ধামকি দেন এবং মনগড়া বানোয়াট রিপোর্টে পেশ করেন। যা উদ্দেশ্য প্রণোদিত। অদক্ষ আর অসৎ লোকেরা অসচ্ছল প্রক্রিয়ায় নিয়োগ পেলেন যা হয় আরকী। নিজে কাজ বুঝেন না আর নিজ স্বার্থে অন্যকে হুমকিধামকি দিয়ে উপজেলা অফিস সমুহের লোকজনদের সুষ্ঠু কাজের ব্যঘাত ঘটান!

জেলা সমন্বয়কারী (ডিসিও) তানিয়া আফরিন ও সিনিয়র অফিসার হয়তো নিজের অযোগ্যতা অদক্ষতা ঢাকতে হুমকিধামকি দিয়ে চলেন আর নিজেকে বিরাট ক্ষমতাধারী ব্যক্তি জাহির করতে চান। এখন কথা হচ্ছে কিসের ভিত্তিতে এসব অদক্ষ অথর্ব অসৎ ডিসিও নিয়োগ দেয়া হয় তা প্রশ্ন বিদ্ধ।

নিজ দায়িত্বের প্রতি উদাসিন, অদক্ষ, অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত ডিসিও তানিয়া আফরিনের মত অসৎ অদক্ষ অযোগ্য ব্যক্তিরা কিসের ভিত্তিতে নিয়োগ পেয়েছে আর দুদিনের বৈরাগী হয়ে চাকুরীতে সিনিয়র অফিসার আব্দুর রহমানের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতি মনিটরিং, কিসের স্বার্থে একজন অর্থ আত্মসাৎকারীকে বাঁচাতে তৎপর তার পর্যবেক্ষণ ও উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃস্টি দেয়া অতীত প্রয়োজন।

এসব অদক্ষ ও দূর্নীতিগ্রস্থদের যথাযথ ব্যবস্থা ও কর্মের প্রতি নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের মুল্যায়নে প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। তা না হলে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে গরীব জনগোষ্ঠীর সুবিধার্থে এই প্রকল্পটি প্রশ্ন বিদ্ধ হয়েই রয়ে যাবে।

(মতামত লেখকের নিজস্ব)

 

লেখক:
অনিরুদ্ধ অনন্ত, কুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়া।

Please follow and like us: