দ্বিতীয় দফায় বিনামূল্যের কোরআন শরীফ বিতরনের চাহিদা আহ্বাণ

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এসিস্ট বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পবিত্র রমজান মাসে বিনামূল্যে কোরআন শরীফ বিতরণ হচ্ছে। এরই মধ্যে প্রথম দফায় দেশের পাঁচটি জেলায় কোরআন শরীফ পাঠানোর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় দেশের বিভিন্ন এতিমখানা ও মাদরাসা থেকে চাহিদা আহ্বাণ করা হচ্ছে।

দেশের অনেক এতিমখানা ও মাদরাসা রয়েছে, যেসব প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের জন্য কোরআন শরীফ প্রয়োজন। পাশাপাশি পবিত্র রমজানে কোরআন তেলাওয়াতের ফজিলতও বেশি। এই দৃষ্টিকোণ থেকে সংগঠনটি ব্যক্তি পর্যায়ে কোরআন শরীফ সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রেরণ করে।

এই রমজান মাসেই পবিত্র কোরআন অবতীর্ণ হয়েছে। তাই এই মাসে বেশি বেশি কোরআন তেলাওয়াতে ফজিলত বেশি। অনেকে এই মাসে কোরআন খতম করেন। অথচ আমাদের মধ্যে অনেকেই এই মাসে কোরআন তেলাওয়াতের গুরুত্ব সর্ম্পকে সতর্ক থাকি না। আমাদের অনেকের বাসায় কোরআন শরীফ থাকা সত্ত্বেও তা তেলাওয়াত করি না। আবার অনেকের ইচ্ছা আছে কিন্তু, কোরআন নেই।ফজিলতের এই মাসে অপরজনকে কোরআন তেলাওয়াতের সুযোগ করে দেওয়াও উত্তম কাজ।

এসিস্ট বাংলাদেশ এই মহতী উদ্দেশ্যের যোগসূত্রের কাজ করছে। কোনো এতিমখানা কিংবা মাদ্রাসা পবিত্র কোরআন শরীফ পেতে আগ্রহী হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। ‘এসিস্ট বাংলাদেশ’ এর পক্ষ থেকে চাহিদা অনুযায়ী পবিত্র কোরআন বিতরণ করার সাধ্যমত চেষ্টা করা হবে।

এই কার্যক্রমে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান আমাদের সহযোগিতা করতে চাইলে আমরা তা সাদরে গ্রহণ করবো। নগদ অর্থের থেকে সরাসরি কোরআন শরীফ দানকেই আমরা বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকি। আপনার দেওয়া কোরআন শরীফটি আমরা পৌঁছে দিব দেশের কোনো এক খুদে হাফেজ কিংবা মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর হাতে, যার আমলে আপনিও হতে পারেন লাভবান। যোগাযোগ: ০১৭১৩-০৭৭৬৬৭, ০১৯১৯-২৮৩০৯৯। ইমেইল: assistbangladesh@gmail.com।

প্রসঙ্গত, ‘এসিস্ট বাংলাদেশ’ ২০১২ সাল থেকে প্রতি রমজানে দেশের বিভিন্ন এতিমখানা ও মাদ্রাসায় পবিত্র কোরআন শরীফ বিতরণ করে আসছে। এবারো আমাদের এই মহতী কার্যক্রম চলছে। এরই মধ্যে দেশের একটি জেলায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক কোরআন শরীফ বিতরণ করা হয়েছে। এই কার্যক্রম পুরো রমজান মাস জুড়ে চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *